বৃহস্পতিবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বিশেষ নিউজ

নির্বাচন কর্মকর্তাকে মারধর: বাঁশখালীর এমপিকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ


NEWSWORLDBD.COM - June 12, 2016

7855উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে মারধরের মামলায় চট্টগ্রামের বাঁশখালীর সরকারদলীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর আগাম জামিনের আবেদন নাকচ করে তাকে ২০ জুনের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. আমির হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ রোববার এই আদেশ দেয়।

মামলা হওয়ার নয় দিন পর ঢাকায় উচ্চ আদালতে হাজির হয়ে আগাম জামিনের এই আবেদন করেছিলেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাংসদ মোস্তাফিজ। তার পক্ষে শুনানি করেন জ্যৈষ্ঠ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদার।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ এ কে এম মনিরুজ্জামান কবির।

তিনি বলেন, “আদালত আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছেন।”

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম গত ৩ জুন বাঁশখালী থানায় সাংসদ মুস্তাফিজের বিরুদ্ধে ওই মামলা দায়ের করেন।

মামলায় অভিযোগ, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ‘ফর্দ অনুযায়ী’ ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ‘নিয়োগ না দেওয়ায়’ ১ জুন ওই সাংসদ ও তার লোকজন ইউএনও কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে তাকে মারধর করেন।

সাংসদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পছন্দমতো নির্বাচন কর্মকর্তা নিয়োগ না দেওয়ায় গত বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামকে স্থানীয় সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ে ডেকে নেন। তখন ইউএনও তাঁর কার্যালয়ে ছিলেন না। পরে ওই কার্যালয়ের দরজা বন্ধ করে সাংসদ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে মারধর করেন। এরপর ওইদিন বিকেলে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বৈঠকে সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত হয়। একই সঙ্গে বাঁশখালীর সব কটি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচন স্থগিত করে ইসি।

এমপি মোস্তাফিজ ওই কর্মকর্তার কাছে পছন্দমতো নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নিয়োগ দেওয়ার তালিকা দিয়ে চাপ দিচ্ছিলেন। এছাড়া ওই এমপি নির্বাচন কর্মকর্তাকে জামাত-শিবিরের লোক বলেও অভিযোগ দেয়। যদিও জাহিদুল ইসলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের রাজনীতি করতেন।

ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে ওইদিন বিকেলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন জাহিদুল ইসলাম।  তিনি জানান, সংসদ সদস্যের পিএস তাজুল ইসলাম তাকে একটি তালিকা দিয়েছিলেন।  সেই তালিকা অনুযায়ী প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার নিয়োগের জন্য এমপি নির্দেশ দিয়েছেন বলে তাজুল তাকে জানিয়েছিলেন।

জাহিদুল বলেন, ‘ওই তালিকা অনুযায়ী আমি প্রিজাইডিং ও পোলিং ‍অফিসার নিয়োগ না দেয়ায় তারা আমার উপর অসন্তুষ্ট হন।  আজ (বুধবার ) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আমি বাহারছড়া ইউনিয়নে ছিলাম।  এমপি সাহেব আমাকে ইউএনওর কার্যালয়ে ডেকে পাঠান।  আমি সেখানে গেলে তিনি শুরুতেই উত্তেজিতভাবে আমাকে বলেন, অ্যাই…….(ছাপার অযোগ্য গালি) আমি যাদের দায়িত্ব দিতে বলেছিলাম, তাদের তালিকায় রাখিসনি কেন? আমি বললাম, স্যার, আমি নির্বাচনী আইন অনুযায়ী কাজ করেছি।  এসময় তিনি বলেন, অ্যাই তোরা কোথায় ? …(ছাপার অযোগ্য গালি) মারতে হবে। ‘

‘তখন এমপি নিজেই আমাকে … (ছাপার অযোগ্য গালি), মা-বাবা ধরে গালি দিয়ে আমাকে চড়-থাপ্পড় দিতে থাকেন।  আমি বলি, স্যার আপনি আমার গায়ে হাত দিতে পারেন না।  তখন তার সন্ত্রাসীরা এসে আমাকে কিল, ঘুষি, লাথি দিতে শুরু করে।  এসময় সেখানে বাঁশখালী থানার একজন এস আই ছিলেন।  তিনি কোন বাধা দেননি।  আমি স্যারকে (আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা) ফোন করার জন্য পকেট থেকে মোবাইল বের করলে পুলিশ কর্মকর্তা সেটি আমার কাছ থেকে কেড়ে নেন। ’

‘পরে এমপি সাহেব আমাকে বাঁশখালী ছেড়ে না গেলে মেরে ফেলার হুমকি দেন।  আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে দ্রুত শহরে চলে এসেছি।’

গত এপ্রিলে বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনার পর আলোচনায় আসা এমপি মোস্তাফিজ মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ছাত্রলীগের ছেলেরা ওই নির্বাচন কর্মকর্তার দিকে ‘তেড়ে গিয়েছিল’ শুধু; নির্বাচনী কর্মকর্তা জাহিদুল ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সহানুভূতি পেতে’ ঘটনাকে ‘অতিরঞ্জিত’ করেছেন।

ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক নেতা জাহিদুলকে ‘দুর্নীতিবাজ’ আখ্যা দিয়ে তার বিরুদ্ধে জামায়াত সংশ্লিষ্টতারও অভিযোগ এনেছেন আওয়ামী লীগের এই এমপি।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...






-

Editor & Publisher: M. Arman Hossain

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
News & Editorial: 39 Mymensingh Lane, Banglamotor
Dhaka-1205, Bangladesh.