শুক্রবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
  • প্রচ্ছদ » শিক্ষা » শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের তালিকা হচ্ছে
বিশেষ নিউজ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের তালিকা হচ্ছে


NEWSWORLDBD.COM - July 13, 2016

Gulshan-holy-Artizan-edsm20160711155706রাজশাহীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোয় অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। রাজধানীর গুলশানে হামলাকারীদের মধ্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সংশ্লিষ্টতা এবং কয়েক মাস ধরে তাদের নিখোঁজ থাকার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

পৃথকভাবে এ তালিকা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে রাজশাহী মহানগর মেট্রোপলিটন পুলিশ, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও শিক্ষা দপ্তর।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র সহকারী কমিশনার ইফতেখায়ের আলম বলেন, এরই মধ্যে তারা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে দীর্ঘদিন ধরে নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরির কাজ শুরু করেছেন। পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে এ কাজ শুরু হয়েছে। এ ছাড়া থানাগুলোয় কোনো নিখোঁজ সংবাদ থাকলে সেগুলোও যাচাই-বাছাইয়ের পর অবহিত করতে বলা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, কোনো শিক্ষার্থী নিখোঁজ থাকলে পরিবারকে তা নিকটস্থ থানায় জানাতে বলা হয়েছে। জনসচেতনতায় স্থানীয় ক্যাবল টিভি ও পত্রপত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া ভাড়াটিয়া ও মেসে অবস্থানকারীদের বিষয়েও আলাদা তথ্য সংগ্রহ চলছে। এ নিয়ে সবার সর্বাত্মক সহযোগিতাও চেয়েছেন নগর পুলিশের এ কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপউপাচার্য অধ্যাপক নূরুল হোসেন চৌধুরী বলেন, এ সংক্রান্ত কোনো চিঠি তারা এখনো হাতে পাননি। তবে কোনো শিক্ষার্থী পরপর তিন দিন অনুপস্থিত থাকলে তারা অভিভাবকদের জানিয়ে আসছেন। শুরু থেকেই চলছে তাদের এ কার্যক্রম। বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে গত ১১ জুলাই বিশেষ সভা করেছেন তারা। ওই সভায় অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই ওই তালিকা তৈরি হয়ে যাবে।

এদিকে এ বিষয়ে রাজশাহীর আরেকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নর্থবেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার রিয়াজ মোহাম্মদ জানান, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরিজীবীরাও পড়াশোনা করেন। তাদের ক্লাস হয় ছুটির দিনগুলোতে। তাদের অনুপস্থিত থাকার সুযোগ কম। এ ছাড়া নিয়মিত শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতির বিষয়ে সতর্ক হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়। এ নিয়ে গত ১১ জুলাই তারাও সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে সভা করেছেন। অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে জানাতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকদের বলা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ১০ দিনের বেশি কোনো শিক্ষার্থী ক্লাসে অনুপস্থিত থাকলে সরকারকে অবহিত করতে হবে। সরকারি এমন নির্দেশের ভিত্তিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে চিঠি পাঠানো হয়েছে। গত ১০ জুলাই পাঠানো এ চিঠিতে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়া অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের শনাক্তকরণের কথা বলা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়, ১০ দিনের বেশি অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শনাক্ত করবে এবং তাদের অভিভাবকের সঙ্গে আলোচনার পর অনুপস্থিতির কারণ সন্দেহজনক বলে প্রতীয়মান হলে লিখিতভাবে ওই শিক্ষার্থীদের তথ্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করবে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার প্রাপ্ত তথ্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে জেলা প্রশাসককে অবহিত করবেন।

মেট্রোপলিটন এলাকায় অবস্থিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো জেলা শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে এরকম তথ্য জেলা প্রশাসকের কাছে প্রেরণ করবে। সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এ রকম তথ্য বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনকে অবহিত রেখে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রেরণ করবে। তথ্য প্রাপ্তির পর জেলা প্রশাসক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রত্যেক শিক্ষার্থীর অভিভাবকের ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর সংরক্ষণ করবে এবং কোনো শিক্ষার্থীর অনুপস্থিতির কারণ সন্দেহজনক হলে অভিভাবকের সঙ্গে আলোচনা করবে।

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ও কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর তাদের আওতাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের উল্লিখিত কার্যক্রম তদারকি ও যথাযথভাবে পালন নিশ্চিত করবে।

এমতাবস্থায় মাধ্যমিক, তদুর্ধ্ব পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। এ নিয়ে ১৮ ও ২৩ জুলাই পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের নিয়ে সভা করারও কথা রয়েছে। এ চিঠি দেওয়া হয়েছে মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে।

তবে এমন কোনো চিঠি এখনো হাতে পাননি রাজশাহীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানরা। চিঠি পৌঁছেনি রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডেও।

এ তথ্য নিশ্চিত করে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক তরুণ কুমার সরকার জানিয়েছেন, মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পেলে চিঠির মাধ্যমে কলেজগুলোকে তারা ওই নির্দেশনা জানিয়ে দেবেন। বুধবার দুপুর পর্যন্ত তারা এমন কোনো নির্দেশনা পাননি। এ সপ্তায় ওই চিঠি আসতে পারে বলে জানিয়েছেন বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক দেবাশিষ রঞ্জন রায়। চিঠি পাবার পরই তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলেও জানান তিনি।

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের আওতায় ৮০০ বেশি কলেজ ও তিন হাজার ১০০ মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। কলেজগুলোর অধিকাংশই আবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত।  এরই মধ্যে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজেদের মত করে অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিষয়ে খোঁজ-খবর নিতে শুরু করেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...






-

Editor & Publisher: M. Arman Hossain

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
News & Editorial: 39 Mymensingh Lane, Banglamotor
Dhaka-1205, Bangladesh.