মঙ্গলবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
বিশেষ নিউজ

শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন ইরাদ সিদ্দিকী


NEWSWORLDBD.COM - September 26, 2016

শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকীপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ছায়া মেয়র হিসেবে পরিচয় দেয়া চৌধুরী ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী। ইরাদ লিখেছেন, ”শেখ হাসিনাকে গুপ্তহত্যা ছাড়া বাংলাদেশের ক্ষমতার ভারসাম্য ও গণতন্ত্র ফেরানো সম্ভব নয়।”

উল্লেখ্য, ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী সর্বশেষ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ছিলেন। তার বাবা সাবেক বিএনপি নেতা চৌধুরী তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী।

শুধু শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি নয়, ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়েও ব্যঙ্গ চিত্র বানিয়ে ফেসবুকে পোষ্ট করেছেন। পাশাপাশি বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র উল্লেখ করে ছবি আকারে পোষ্ট দিয়েছেন নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে।

শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকীনিজেকে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ছায়া মেয়র হিসেবে পরিচয় দেয়া ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী ২৫ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার কিছু পরে এক স্ট্যাটাসে ইংরেজিতে লিখেছেন,”শেখ হাসিনাকে গুপ্তহত্যা সম্ভব নয় কারন শেখ হাসিনার চারিদিকে ভারতের বিশেষ নিরাপত্তা চাদর রয়েছে। ভারতীয়রা সরাসরি শেখ হাসিনার নিরাপত্তা বিধান করছে। কারন শেখ হাসিনা বাংলাদেশে ভারতের স্বার্থেরই প্রতিনিধিত্ব করছেন। শেখ হাসিনাকে গুপ্তহত্যা ছাড়া বাংলাদেশের ক্ষমতার ভারসাম্য ও গণতন্ত্র ফেরানো সম্ভব নয়।”

সম্প্রতি নিজের ফেসবুক পেজের নাম হিন্দীতে রুপান্তর করা ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী গত ১৫ই সেপ্টেম্বর রাত ১০ টা ৫৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবির নিচে এক মধ্যম আঙ্গুলি প্রদর্শন করিয়ে ট্রল করে পোষ্ট দেন। সেখানে লিখেছেন, ”ভাস্কর্য হাজারো শব্দের প্রতিনিধিত্ব করে।” এছাড়া নিজেকে জমিদারের বংশধর হিসেবে প্রচার করা ইরাদ আহমেদ সিদ্দিকী তার পেইজে একটি ঘোড়ার তৈল চিত্রের ছবি দিয়ে বঙ্গবন্ধুর পিতা সেই ঘোড়ার ভৃত্য ছিলেন বলে উল্লেখ করেছেন।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...






-

Editor & Publisher: M. Arman Hossain

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
News & Editorial: 39 Mymensingh Lane, Banglamotor
Dhaka-1205, Bangladesh.