English
শনিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৭
বিশেষ নিউজ

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরু


নিউজওয়ার্ল্ডবিডি.কম - ০৮.১২.২০১৬

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরুনোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহম্মদ ইউনূস, তার পরিবার এবং তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংকের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরু করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

গত সপ্তাহে এনবিআরের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা শাখা সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স সেল (সিআইসি) দেশের সব ব্যাংকে এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করতে নিদের্শ সম্বলিত চিঠি পাঠিয়েছে।

চিঠিতে সাত দিনের মধ্যে ড. ইউনূস, তার পরিবার এবং গ্রামীণ ব্যাংকের যেকোনো অ্যাকাউন্ট, ঋণ এবং অন্যান্য আর্থিক তথ্য প্রদান করতে বলা হয়েছে।
এ সংক্রান্ত একটি খবর বৃহস্পতিবার প্রকাশ করেছে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরার।

এদিকে চলতি বছরে ড. ইউনূস এনবিআরে যে আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছেন তা যাচাই করতে তার আয়-ব্যায়ের প্রয়োজনীয় নথিপত্র চেয়ে তাকে চিঠি পাঠিয়েছেন এনবিআরের একজন কমিশনার।

ব্যাংকে সিআইসির পাঠানো নোটিশের ব্যাপারে জানতে ইউনূস সেন্টারের মিডিয়া মুখপাত্র সাব্বির ওসমানির সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ড. ইউনূস এ ব্যাপারে এখনই মন্তব্য করতে পারছেন না।

ড. ইউনূসের আয়কর রিটার্নের বিষয়ে জানতে চাইলে ওসমানি বলেন, এনবিআর কর্তৃপক্ষ যেসব তথ্য চেয়েছেন তার সব কিছুই তিনি সরবরাহ করেছেন।

তিনি বলেন, অধ্যাপক ইউনূস সব সময় তার আয়কর সংক্রান্ত তথ্য নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই সরবরাহ করে আসছেন।

ড. ইউনূসের আর্থিক ব্যাপারে এনবিআর এবারই প্রথম আগ্রহ প্রকাশ করেনি। ২০১৫ সালে তার বিরুদ্ধে ১৫ লাখ ডলার কর পরিশোধ না করার অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের করেছিল এনবিআর। তবে মামলাটি হাইকোর্টের নির্দেশে স্থগিত রয়েছে।

২০০৭ সালে ড. ইউনূস নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের উদ্যোগ নেয়ার মাধ্যমে বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন। এরপর থেকেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সঙ্গে তার বিরোধ চলে আসছে।

যার জের ধরে ড. ইউনূসকে অনিয়মের অভিযোগ গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদ থেকে অপসারণ করা হয়। তার বিরুদ্ধে খাদ্যে ভেজাল দেয়ার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়া গ্রামীণ ব্যাংক ও এর অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে অনিয়মের বিষয়ে তদন্তের উদ্যোগ নেয়া হয়।

এদিকে পদ্মা সেতু নির্মাণে বিশ্বব্যাংকের তিনশ কোটি ডলার বিনিয়োগ বন্ধ করতে লবিং করার জন্য ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই বিনিয়োগ বন্ধে ষড়যন্ত্রের জন্য ষড়যন্ত্রকারীদের বিচারের মুখোমুখি করারও কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তবে ড. ইউনূসের বিষয়ে এনবিআরের নতুন তদন্ত তাকে হয়রানি করার জন্য করা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র আর্থিক তথ্য জানতে চেয়ে এসব চিঠি পাঠানো হয়েছে- যা মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীসহ যেকোনো নাগরিককেই পাঠানো যেতে পারে।

তথ্য উপদেষ্টা আরও বলেন, আমি মনে করি না তথ্য জানতে চেয়ে পাঠানো চিঠিকে ‘নতুন হয়রানি’ বিবেচনা করা উচিত হবে না। ইউনূস একজন সম্মানিত ব্যক্তি এবং তার বিরুদ্ধে সরকার কোনো মামলা করেনি। এখানে সরকারের দিক হয়রানির কোনো ব্যাপার নাই।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...







Editor: AHM Anwarul Karim

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
43/B/1, East Hazipara, Rampura
Dhaka-1219, Bangladesh.