English
সোমবার ২৩ জানুয়ারী ২০১৭
বিশেষ নিউজ

তিন হাজার মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা ভারতকে দিল বাংলাদেশ


নিউজওয়ার্ল্ডবিডি.কম - ০৬.০১.২০১৭

বাংলাদেশ ও ভারত উভয়ের ৩৪০০ জন মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা বিনিময় হয়েছে। এদের মধ্যে বাংলাদেশের তিন হাজার মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা বিএসএফকে দিয়েছে বিজিবি। মাদক ব্যবসায় জড়িত এসব ব্যক্তি দুই দেশের সীমান্ত এলাকায় বাস করে। তারা সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরে মাদক চোরাচালান করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছে পৌঁছে দেয়।

এদিকে মাদক চোরাচালানের সীমান্তে প্রধান দুই রুট চিহ্নিত করা হয়েছে। এর একটি রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ির লালগোলা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়ার এলাকা। আখাউড়া দিয়ে বেশিরভাগ গাঁজা ও হেরোইন এবং লালগোলা দিয়ে ফেনসিডিল চোরাচালান হয়ে থাকে।

গত ১৮ ডিসেম্বর নয়াদিল্লিতে বাংলাদেশের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ১১ সদস্যের দল এবং ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যৌথ বৈঠকে এই তালিকা হস্তান্তর হয়েছে। এছাড়া দুই দেশের কর্মকর্তারা আরো কয়েকটি বিষয়ে মতৈক্য পোষণ করে একসঙ্গে কাজ করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। বাংলাদেশের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের প্রতিনিধিদল দিল্লির ওই বৈঠকে অংশ নেন।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিচালক (অপারেশন ও গোয়েন্দা) সৈয়দ তৌফিক উদ্দিন আহমেদ জানান, ‘অত্যন্ত আন্তরিক পরিবেশে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। কার্যকর কী উদ্যোগ নিলে সর্বনাশা মাদকের ভয়াল থাবা থেকে দুই দেশের জনগণ বাঁচতে পারে সেই বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আলোচনায় কয়েকটি এজেন্ডা ছিল। তিনি আরো জানান, বৈঠকে উভয় দেশ মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা বিনিময় করেছে। বাংলাদেশ ৩০০০ হাজার মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা দিয়েছে। এর ৬০ শতাংশ সীমান্তের বাসিন্দা। অন্যদিকে ভারতের পক্ষ থেকে ৪০০ জন মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা দেয়া হয়েছে। ওই ৪০০ জন ভারতের বিভিন্ন এলাকার সীমান্ত বাসিন্দা। ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওই ৪০০ জন রাঘববোয়াল মাদক ব্যবসায়ী। এছাড়াও দুই দেশ মাদক পাচারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া এবং রাজশাহীর গোদাগাড়ির লালগোলাকে চিহ্নিত করেছে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের গোয়েন্দা শাখা কর্তৃক জানা গেছে, দুই দেশের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর যৌথ বৈঠকের উভয়ই আমন্ত্রণপত্র প্রেরণ করেছিল। এরই অংশ হিসেবে বাংলাদেশ আগেই ভারত সফর করেছে। উভয় দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে মাদক দমন নিয়ে একাধিক ইস্যুতে খোলামেলা আলোচনা হয়। মাদক দমনে দুই দেশের অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং নিয়মিত কর্মকর্তা পর্যায়ে বৈঠকের ব্যাপারে উভয় দেশের কর্মকর্তারা একমত পোষণ করেন।

সূত্র জানায়, যাদের তালিকা বিনিময় করা হয়েছে তারা দীর্ঘদিন সীমান্তে মাদক ব্যবসা করে যাচ্ছে। এক্ষেত্রে তারা অসাধু বিজিবি এবং বিএসএফ কর্মকর্তাদের মাসোহারা দিয়ে থাকে। অনেকেই মাদকের চোরাচালান করে শূন্য থেকে কোটিপতি হয়ে গেছে। ওই মাদক ব্যবসায়ীরা এখন একাধিক চক্র নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। মাদক ব্যবসায়ীরা বৈধ ও অবৈধ কোনোভাবেই যেন দুই দেশে যাতায়াত করতে না পারে এজন্য উভয় দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আরো সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও মাদক ব্যবসায়ীরা মোবাইল ফোনে কোন কোন চোরাকারবারির সঙ্গে যোগাযোগ রাখে ওই নম্বরগুলো যেন নিজ নিজ দেশের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর কর্মকর্তারা ট্র্যাকিং করেন- এ বিষয়েও উভয় দেশের কর্মকর্তারা একমত হয়েছেন।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...







Editor: AHM Anwarul Karim

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
43/B/1, East Hazipara, Rampura
Dhaka-1219, Bangladesh.