English
শুক্রবার ২১ এপ্রিল ২০১৭
বিশেষ নিউজ

পেনশনের টাকা একবারে তোলা যাবে না: নতুন প্রজ্ঞাপন


নিউজওয়ার্ল্ডবিডি.কম - ১১.০১.২০১৭

সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়…

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সরকারি চাকরিজীবীরা তাঁদের অবসরকালীন পেনশনের টাকা একেবারে তুলতে পারবেন না। অবসর নেওয়ার পর সরকার নির্ধারিত সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে চাইলে ৫০ শতাংশের বেশি টাকা কেউ তুলতে পারবেন না। অর্থমন্ত্রী বুধবার বিকেলে সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, সরকারি কর্মচারীরা পেনশনের পুরো টাকা আর একবারে তুলে নিতে পারবেন না। তবে অর্ধেক তুলে নিতে পারবেন। বাকি অর্ধেক নিতে হবে তাদের মাসে মাসে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ বেসামরিক ও সামরিক সরকারি কর্মচারীদের জন্য নতুন এ বিধান চালু করেছে। মঙ্গলবার এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে অর্থ বিভাগ।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘যেসব পেনশনভোগী ১০০ ভাগ পেনশনের টাকা তুলে নিয়ে গেছেন, তারা ডুবেছেন। এখন তারা কোনো বেনিফিট পাবেন না।’

তিনি আরও বলেন, ভবিষ্যতে পেনশনভোগীদের যেন কোনো সমস্যা না হয়, সে জন্যই নতুন বিধান করা হয়েছে। এখন ৫০ শতাংশ তারা উঠিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন এবং ৫০ শতাংশ মাসিক ভিত্তিতে তুলতে পারবেন।

পেনশনধারীদের আর্থিক ও সামাজিক সুরক্ষা নিশ্চিত করার স্বার্থে বিধানটি চালু করা হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়। আগামী ১ জুলাই থেকে নতুন বিধান কার্যকর হবে। অর্থাৎ এ বছরের ৩০ জুন বা তারপর যাদের অবসর-উত্তর ছুটি শেষ হবে, তারাই নতুন নিয়মের আওতায় আসবেন। তবে পেনশনার বা পারিবারিক পেনশনাররা মাসিক পেনশনের ওপর ৫ শতাংশ হারে বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট পাবেন। এটাও কার্যকর হবে আগামী ১ জুলাই থেকে।

বেসরকারি খাতের পেনশন ব্যবস্থা চালু করার উদ্যোগ কোন পর্যায়ে রয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বেসরকারি খাতেও আমরা অবসরকালীন পেনশন ভাতা চালুর উদ্যোগ নিয়েছি। এতে একটু সময় লাগবে।’

আগামী বাজেটের আগেই এ বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক হবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...







Editor: AHM Anwarul Karim

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
43/B/1, East Hazipara, Rampura
Dhaka-1219, Bangladesh.