সোমবার ২১ অগাস্ট ২০১৭
বিশেষ নিউজ

ছাত্রলীগ নেতার রমরমা মাদক ব্যবসা: তিনি হতে যাচ্ছেন সভাপতি


NEWSWORLDBD.COM - July 3, 2017

নিজস্ব প্রতিবেদক: তিনি একদিকে মাদক ব্যবসায় বেশ নাম করেছেন। আবার কাউন্সিলের মাধ্যমে গঠিত হতে যাওয়া কমিটিতে সভাপতি পদ পাওয়া মোটামুটি নিশ্টিত করে ফেলেছেন।

জানা গেছে, সম্মেলন শেষ হওয়ার সাড়ে তিন মাস পর ঘোষণা হতে যাচ্ছে বরগুনার আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি। সভাপতি ও সম্পাদক এই দু’টি শীর্ষ পদের নাম ঘোষণা করবে জেলা ছাত্রলীগ।

এই সভাপতি পদে জেলা পর্যায়ের নেতাদের পছন্দের তালিকায় মাদক ব্যবসায় অভিযুক্ত মাহবুবুল ইসলামের নাম রয়েছে বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। মাহবুবের সভাপতি পদের প্রার্থীতা নিয়ে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ কর্মীদের মধ্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

জেলা ও আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ মার্চ বরগুনার আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মলেন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে ছাত্রলীগের বরগুনা জেলা শাখার সভপতি যুবায়ের আদনান অনিক, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসাইনসহ জেলা ছাত্রলীগের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলন শেষে জেলার নেতারা সভাপতি সম্পাদকের নাম ঘোষণার কথা থাকলেও দীর্ঘ সাড়ে তিনমাস পর জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহের তাদের নাম ঘোষণা করা হবে বলে শোনা যাচ্ছে। এদিকে জেলা ছাত্রলীগের নির্ভরযোগ্য একটি সুত্র জানিয়েছে, মাদক ব্যবসায়ী মাহবুবুল আলমকে সভাপতি ঘোষণার বিষয়টি প্রায় চুড়ান্ত।

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আমতলী উপজেলায় ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী মাহবুবুল ইসলামের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার একাধিক অভিযোগ রয়েছে। মাহবুবুল আলমসহ চার মাদক ব্যবসায়ীকে ২০১১ সালের ২৭ মে পটুয়াখালী জেলার মির্জগঞ্জ উপজেলার মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের ভয়াং শারাফাতিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে পাঁচ কেজি গাঁজাসহ গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৮ এর পটুয়াখালী ক্যাম্পের সদস্যরা। পরে তৎকালীন পটুয়াখারী র‌্যাব ক্যাম্পের ডিএডি মো. রেজাউল সরকার বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ থানায় একটি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার পুলিশ তদন্ত শেষে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী মাহবুবুল আলমসহ চারজন আসামিকে অভিযুক্ত করে মির্জাগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করে।

এদিকে, স্থানীয় ছাত্রলীগের বেশ কয়েজন সক্রিয় নেতা-কর্মী জানান, কিছুদিন আগেও যে ছিল মাদকব্যবসায়ী আজ সে ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী। সে যদি সভাপতি নির্বাচিত হয় তাহলে ছাত্রলীগের সুনাম নষ্ট হবে। একই সঙ্গে সে রাজনৈতিক ক্ষমতার অপব্যবহার করে মাদক ব্যবসার সার্থে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীসহ সাধারণ ছাত্রদের মাকদ্রব্যে আসক্ত করাতে পারে এবং আমতলীতে মাদক দ্রব্যের আখড়া তৈরি করবে।

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মামুন সবুজ বলেন, আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থীদের মধ্যে জেলা পর্যায়ের নেতাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছেন ব্যবসায়ী মাহবুবুল আলম।

র‌্যাবে কাছে গাঁজাসহ মাহবুব হাতেনাতে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন জানিয়ে সবুজ বলেন, মাহবুবকে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের কোন কর্মীই সভাপতি হিসেবে মেনে নেবে না। বরং এতে সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ার পাশাপাশি সক্রিয় কর্মীরা ঝিমিয়ে পড়বে।

 

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট এম এ কাদের বলেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রাথীদের মধ্যে মাহবুবুর রহমানের থেকেও পরিচ্ছন্ন, ব্যাক্তিত্বসম্পন্ন ও গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তাদের মধ্য থেকে একজনকে সভাপতি হিসেবে কাজ করার সুযোগ করে দিলে সংগঠনের ভাবমূর্তি উজ্জল করার পাশাপাশি দক্ষতার সাথে ছাত্র সমাজেরও নেতৃত্ব দিতে পারবে তারা। মাহবুব সম্প্রতি ছাত্রলীদের রাজনীতিতে যুক্ত হয়েছে। তাই ত্যাগী নেতারাই আমতলী উপজেলার ছাত্রলীগের নেতৃত্ব পারে বলে তার বিশ্বাস

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী মাহবুবুর রহমান নিজেকে একজন পরিচ্ছন্ন ছাত্রলীগ কর্মী দাবি করে বলেন, স্কুল জীবন থেকেই আমি ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত।

তিনি মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নন দাবি করে তিনি বলেন, ২০১১ সাথে তিনি মাদকের মামলায় ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিলেন। সেই মামলা এখন নিস্পত্তির পথে বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসাইন বলেন, মাহবুবের মাদকব্যাবসায় জড়িত থাকার অভিযোগের কথা শুনেছি। এ ব্যাপরে আমরাও খোঁজ নিচ্ছি।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...







Editor: AHM Anwarul Karim

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
43/B/1, East Hazipara, Rampura
Dhaka-1219, Bangladesh.