শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭
বিশেষ নিউজ

ঢাবি’তে কর্মচারীর মেয়ের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধৃত ছাত্রলীগ নেতা


NEWSWORLDBD.COM - July 13, 2017

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রলীগ নেতাকে এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ধরার পর হল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। বুধবার গভীর রাতে কবি জসীমউদদীন হল থেকে তাঁকে বের করে দেন ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মী।

ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম বোরহান উদ্দিন। তিনি ঢাবির ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ছাত্রলীগের সভাপতি এবং মার্কেটিং বিভাগের ছাত্র।

বুধবার ১২ জুলাই রাত দেড়টা থেকে ২টার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জসীম উদ্‌দীন হলের কর্মচারীর বাসায় তাকে আপত্তিকর অবস্থায় পাওয়া যায় বলে অভিযোগ ওঠে।

বোরহান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্সের অনুসারী।

কবি জসীমউদদীন হলের এক ছাত্রলীগকর্মী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, দীর্ঘদিন ধরেই হলের আশপাশে বিভিন্ন স্থানে হলের এক কর্মচারীর মেয়ের সঙ্গে বোরহানকে দেখা যেত। গতকাল রাত ১টার দিকে দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। এরপর তাঁরা কয়েকজন মিলে বোরহানকে হল থেকে বের করে দেন।

ওই হলের ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা অভিযোগ করেন, দীর্ঘদিন ধরে বোরহানের ওই বাসায় সন্দেহজনক আনাগোনা ছিলো। তবে এ দিন হলের বিপরীত পাশের রুমগুলো থেকে বোরহান ও হল কর্মচারীর মেয়েকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান হলের কিছু সাধারণ ছাত্র। এক পর্যায়ে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহেদ খানের অনুসারীরা সেখানে গিয়ে তাদের আটক করেন। পরে বোরহানকে টেনে-হিঁচড়ে নিয়ে এসে হলছাড়া করেন হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা। এ সময় পুরো হলে হট্টগোল সৃষ্টি হয়।

এর আগেও একই বাসা থেকে ওই মেয়ের বান্ধবী ও তার প্রেমিককে আপত্তিকর অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন তাদের আটককারী নেতাকর্মীরা।

এ নিয়ে হলের ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন।

জানতে চাইলে হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহেদ খান বলেন, ‘বুধবার রাতে হলে একটা অ্যাক্সিডেন্ট ঘটেছে। বিষয়টি এখন তদন্তাধীন। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাই না।’

অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা বোরহান উদ্দীন বলেন, ‘একটি ছেলে ও তার কয়েকজন বন্ধু উদ্দেশ্যমূলকভাবে আমার বিরুদ্ধে বাজে কথা বলছে। আমার সঙ্গে কাউকে আপত্তিকর অবস্থায় পাওয়া যায়নি। গ্রুপিংয়ের কারণে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, ‘ঘটনাটা শুনেছি। তার বিরুদ্ধে যদি প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

তবে ঘটনাটিকে তেমন কোনো বিষয় নয় বলে মন্তব্য করেছেন ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স। এনটিভি অনলাইনকে তিনি বলেন, কবি জসীমউদদীন হলের এক কর্মচারী বোরহানকে বাসায় ডেকে নিয়ে গিয়েছিল। পরে তাঁরা যখন বাসা থেকে বের হয়ে যায়, তখন কয়েকটা ছেলে তাঁকে ধরে এ অভিযোগ দেয়।

এদিকে ঘটনা তদন্তে হল প্রশাসন পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বলে জানা গেছে।

 

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...






-

Chief Editor & Publisher: Advocate Golzer Hossain

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
Sonartori Tower, Banglamotor
Dhaka-1205, Bangladesh.