রবিবার ১৯ নভেম্বর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » জাতীয় » আমি অসুস্থ নই, পালিয়ে যাচ্ছি না: দেশ ছাড়ার আগে প্রধান বিচারপতি
বিশেষ নিউজ

আমি অসুস্থ নই, পালিয়ে যাচ্ছি না: দেশ ছাড়ার আগে প্রধান বিচারপতি


NEWSWORLDBD.COM - October 13, 2017

নিজস্ব প্রতিবেদক: অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিকদের প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমি অসুস্থ নই, কারো সঙ্গে বিরোধও নেই। আমার ধারণা, সরকারকে ভুল বোঝানো হয়েছে।’

রাত ৯টা ৫৬ মিনিটে ঢাকার হেয়ার রোডের বাসা থেকে বেরিয়ে বিমানবন্দরের পথে গাড়িতে ওঠার আগে বাইরে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বিচারপতি সিনহা।

তিনি বলেন, “আমি অসুস্থ না। বিচার বিভাগ যদি কলুষিত না হয় সে জন্য আমি আমি সাময়িকভাবে যাচ্ছি। আবার ফিরে আসব। বিচার বিভাগ যেন বিব্রত না হয়।”

তিনি আরো বলেন, আমাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়নি, ছুটি শেষে যথা সময়ে আবার দেশে ফিরে আসব।

এদিকে ঢাকা ছেড়ে অস্ট্রেলিয়ার পথে রওনা হওয়ার আগে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা গণমাধ্যমের উদ্দেশ্যে একটি লিখিত বিবৃতি দিয়েছেন।

প্রধান বিচারপতির লিখিত বিবৃততি নিচে হুবহু দেওয়া হল:

“আমি সম্পূর্ণ সুস্থ আছি, কিন্তু ইদানিং একটা রায় নিয়ে রাজনৈতিক মহল, আইনজীবী ও বিশেষভাবে সরকারের মাননীয় কয়েকজন মন্ত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে ব্যক্তিগতভাবে যেভাবে আলোচনা করেছেন, এতে আমি সত্যিই বিব্রত। আমার দৃঢ় বিশ্বাস সরকারের একটা মহল আমার রায়কে ভুল ব্যাখ্যা প্রদান করে পরিবেশন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার প্রতি অভিমান করেছেন, যা অচিরেই দূরীভূত হবে বলে আমার বিশ্বাস। সেই সাথে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে আমি একটু শঙ্কিতও বটে। কারণ, গতকাল প্রধান বিচারপতির কার্যভার পালনরত দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রবীণতম বিচারপতির উদ্ধৃতি দিয়ে মাননীয় আইনমন্ত্রী প্রকাশ করেছেন যে, দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি অচিরেই সুপ্রিম কোর্টের প্রশাসনে পরিবর্তন আনবেন। প্রধান বিচারপতির প্রশাসনে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি কিংবা সরকারের হস্তক্ষেপ করার রেওয়াজ নেই। তিনি শুধুমাত্র রুটিনমাফিক দৈনন্দিন কাজ করবেন। এটিই হয়ে আসছে। প্রধান বিচারপতির প্রশাসনে হস্তক্ষেপ করলে এটি সহজেই অনুমিয় যে, সরকার উচ্চ আদালতে হস্তক্ষেপ করছে এবং এরদ্বারা বিচারবিভাগ ও সরকারের মধ্যে সম্পর্কের আরও অবনতি হবে। এটি রাষ্ট্রের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে না।”

এর আগে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে প্রধান বিচারপতি তাঁর বাসভবন ছেড়ে যাওয়ার আগে সাংবাদিকদের বলেন, আমি পালিয়ে যাচ্ছি না, আবার দেশে ফিরে আসবেন।

প্রধান বিচারপতির সরকারি বাসভবনের কাকরাইল মসজিদ সংলগ্ন ফটকের সামনে তাঁকে বহনকারী গাড়িটি পৌঁছার পর তিনি নিজেই গাড়ি থেকে নামেন। গাড়ির ভেতরে প্রধান বিচারপতির স্ত্রীকে দেখা যায়। গাড়ি থেকে নামার পর প্রধান বিচারপতি সাংবাদিকদের সঙ্গে এক থেকে দুই মিনিট কথা বলেন। পরে গাড়িতে ওঠেন। এর পরপরই তাঁর গাড়ি প্রধান ফটক ছেড়ে যায়।

শুক্রবার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে স্ত্রী সুষমা সিনহার সঙ্গে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসে করে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ার কথা প্রধান বিচারপতির।

জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার (ইমিগ্রেশন) আবদুল্লাহ আল মামুন এ কথা জানান। তিনি বলেন, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের এসকিউ ৪৪৭ নম্বর ফ্লাইটে করে যাওয়ার কথা রয়েছে।

বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় ভোর ছয়টা দিকে তিনি সিঙ্গাপুরে পৌঁছাবেন। সেখানে ঘণ্টাখানেক যাত্রা বিরতির পর অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে রওনা দেবেন প্রধান বিচারপতি।

গত পয়লা অক্টোবর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা এক মাসের ছুটির কথা জানিয়ে চিঠি দেন। এখন তাঁর ছুটি ৯ দিন বাড়িয়ে ১০ নভেম্বর করা হয়েছে।

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার পূর্ণাঙ্গ রায় গত ১ আগস্ট প্রকাশিত হয়। ওই দিনই পূর্ণাঙ্গ রায়টি সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়। রায় প্রকাশের পর এ নিয়ে সরকার ও ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ সংক্ষুব্ধ হয়। বিশেষ করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিভিন্ন পর্যবেক্ষণ নিয়ে ক্ষোভ ও অসন্তোষ প্রকাশ করে আসছিলেন মন্ত্রী, দলীয় নেতা ও সরকারপন্থী আইনজীবীরা। তাঁরা প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তোলেন।

১৪ সেপ্টেম্বর সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং তার কিছু পর্যবেক্ষণের বিষয়ে আইনি পদক্ষেপ নিতে জাতীয় সংসদে একটি প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। বিচারিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে সংসদে ওই দিন প্রায় পাঁচ ঘণ্টা আলোচনা হয়, যাতে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৮ জন সংসদ সদস্য অংশ নেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আদালত তার এখতিয়ারের বাইরে গিয়ে সংসদে পাস হওয়া সংবিধানের সংশোধনী বাতিল করেছে।

২৭ আগস্ট থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি ছিল। সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা জাতীয় সংসদের হাতে ন্যস্ত করে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিল ৩ জুলাই খারিজ করে দেন সর্বোচ্চ আদালত।

যে কোনো সংবাদ জানতে আমাদের ফেসবুক পেজ 'লাইক' করতে পারেন (এই লাইনের নিচে দেখুন)...






-

Editor-In-Chief & Publisher: AHM Anwarul Karim

NEWSWORLDBD.COM
email: [email protected]
Phone: +8801787506342

©Titir Media Ltd.
43/B/1, East Hazipara, Rampura
Dhaka-1219, Bangladesh.